আ | বাংলা | স্বরবর্ণ

আঁইশ

আঁইশ ত্বকোদ্ভূত অস্থিময় (bony) বা শৃঙ্গায়িত (horny) ক্ষুদ্রাকৃতির পাতলা পাত (Plate) বিশেষ যা অধিকাংশ মাছসরীসৃপের ত্বক রক্ষাকারী অঙ্গ হিসেবে বিবেচিত হয়ে থাকে। সাধারণত একটি আঁইশের শেষ প্রান্ত পরবর্তী আঁইশের শুরুর প্রান্তের সামান্য অংশ আবৃত করে রাখে।

মাছের আঁইশ ত্বকের ডার্মিস (Dermis) হতে উদ্ভূত ও অস্থিময়। অন্যদিকে সরীসৃপ, পাখি ও স্তন্যপায়ীদের আঁইশ এপিডার্মিস (Epidermis) থেকে উদ্ভূত এবং মূলত শৃঙ্গায়িত। তবে কতিপয় উভচর, সরীসৃপ ও স্তন্যপায়ীদের এপিডার্মিসের পাশাপাশি ডার্মিস স্তর হতে উদ্ভূত আঁইশও দেখতে পাওয়া যায় যা ওস্টিওডার্ম (Osteoderm) নামেই বেশি পরিচিত।

মাছে পাঁচ ধরণের আঁইশ দেখতে পাওয়া যায় যথা- কসময়েড (Cosmoid), প্লাকয়েড (Placoid), গ্যানয়েড (Ganoid), সাইক্লয়েড (Cycloid) ও টিনয়েড (Ctenoid)।

 

 

Scale:

Scale is a skin derived thin bony or horny small plate that protecting the skin of most fishes and reptiles and usually overlapping one another.

In fishes, scales are bony, derived from dermis (inner layer of skin). There are five types of scales found in fishes, such as- Cosmoid, Placoid, Ganoid, Cycloid and Ctenoid.

In reptiles, birds and mammals, scales are mainly horny, derived from mainly epidermis (outer layer of skin).

 

 

 


Are you satisfied to visit this page? If YES, Please SHARE with your friends

Visited 199 times, 1 visits today | Have any fisheries relevant question?

Visitors' Opinions

Leave a Reply